দেশজুড়ে তীব্র লোডশেডিং

65

নিউজ ডেস্ক : ঢাকাসহ সারা দেশে তীব্র লোডশেডিংয়ে দুর্ভোগ বাড়ছে মানুষের। ভুক্তভোগীরা বলছেন, দিন রাত মিলে ৪ থেকে ৫ বার পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিভ্রাট হচ্ছে। বিদ্যুৎ উৎপাদন বিভাগের ভাষ্য মতে, জ্বালানি সংকটে সম্ভব হচ্ছে না প্রয়োজনীয় বিদ্যুৎ উৎপাদন

 

গ্যাসের অভাবে ৭টি, তেলের অভাবে ৩টি, রক্ষণাবেক্ষণে ১৬টি ও কারিগরি ত্রুটিতে ৪টি; সবমিলিয়ে ৩০ টি কেন্দ্রের উৎপাদন পুরোপুরি বন্ধ রাখতে হচ্ছে পিডিবি’কে।

 

নীতিনির্ধারকরা বলছেন, চাহিদার বিপরীতে প্রায় দু’হাজার মেগাওয়াট ঘাটতি সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে বিদ্যুৎ বিভাগ। অথবা আপাতত কমছে না বিদ্যুতের লোডশেডিং।

 

কবে নাগাদ কমবে, তাও নির্দিষ্ট করে বলতে পারছেন না কেউই। বিদ্যুৎ বিভাগ বলছে, জ্বালানি সংকটসহ নানা কারণে উৎপাদন বন্ধ ৩০ টি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের। ফলে চাহিদার চেয়ে অন্তত দু’হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কম উৎপন্ন হচ্ছে দেশে, যার অনিবার্য ফলাফল চলমান লোডশেডিং। এমন অবস্থায় বিদ্যুতের অভাবে রাজধানীসহ সারাদেশে দূর্ভোগ বাড়ছে সাধারণ মানুষের।