চট্টগ্রামে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদন্ড

41
bnews21.com

 

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার চাঞ্চল্যকর শিক্ষিকা রুমি বড়ুয়া হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় তার স্বামী সাবেক সেনা সদস্য রিন্টু বড়ুয়ার (৪১) মৃত্যুদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। তিনি রাঙ্গুনিয়ার বেতাগী এলাকার ডা. কমল কান্তি বড়ুয়ার ছেলে।

সোমবার দুপুরে চট্টগ্রামের অতিরিক্ত ৫ম জেলা ও দায়রা জজ অশোক কুমার দত্তের আদালত এ রায় দেন।
আদালতের সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর (এপিপি) অ্যাডভোকেট রতন চক্রবর্তী জানান, স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগে রাঙ্গুনিয়া থানায় দায়ের করা মামলায় স্বামী রিন্টু বড়ুয়াকে মৃত্যুদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।
প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ১৩ আগস্ট রাতে রাঙ্গুনিয়ার বেতাগী ইউনিয়নের বড়ুয়া পাড়া গ্রামে রুমি বড়ুয়াকে জবাই করে হত্যা করা হয়। নিহত রুমি বড়ুয়া বান্দরবান সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করতেন।

পারিবারিক সূত্র জানায়, ২০০৮ সালের ভালোবাসা দিবস ১৪ ফেব্রুয়ারিতে ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন রিন্টু বড়ুয়া ও রুমি বড়ুয়া। বিয়ের পর তাদের দাম্পত্য জীবন ভালোভাবে চললেও পরে বিভিন্ন বিষয়ে মতপার্থক্য হতে শুরু করে। ছোট সেই মতদ্বৈততা রূপ নেয় ঝগড়ায়। এক পর্যায়ে স্ত্রী রুমিকে মারধর শুরু করে স্বামী রিন্টু। পরে ২০১৭ সালে এসে খুন করে ফেলে স্ত্রীকে।

খুনের ৪ বছর পর এবার স্বামী শুনলেন মৃত্যুদন্ডের আদেশ।
আদালত সূত্র জানায়, রুমী বড়ুয়া বান্দরবন স্কুলে ও রিন্টু বড়ুয়া সেনবাহিনীতে চাকরি করায় দুইজনে বান্দরবানে থাকতেন। ঘটনার সময় (২০১৭ সালের ১৩ আগস্ট) তারা বেড়াতে রাঙ্গুনিয়ার নিজ গ্রামে বেতাগীতে এসেছিলেন। ঘটনার দিনে রাতে স্বামী-স্ত্রী দুইজনে মিলে নিজ বাড়ির ছাদে আড্ডা দিচ্ছেলেন। এসময় রুমী বড়ুয়া মোবাইল গেমস খেলছিলেন। একপর্যাযে স্বামী রিন্টু বড়ুয়া ছুরি দিয়ে গলায় আঘাত করে স্ত্রীকে হত্যা করে।

পরদিন ১৪ আগস্ট রুমির ভাই মনোজ কান্তি বড়ুয়া বাদী হয়ে রাঙ্গুনিয়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। ১৭ আগস্ট ম্যাজিস্ট্রেট হেলাল উদ্দীনের কাছে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয় রিন্টু। ২০ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে বিচারক সোমবার  রিন্টু বড়ুয়ার মৃত্যুদ-ের আদেশ দেন এবং ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।